এবার থেকে বেদ-গীতা-রামায়ণ পড়ানো হবে মাদ্রাসায়

0

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ওপেন স্কুলিং একটি বড় সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এবার থেকে বেদ-গীতা-রামায়ণ পড়ানো হবে মাদ্রাসায়। জাতীয় শিক্ষা নীতির আওতায় এটি দেশের শতাধিক মাদ্রাসায় প্রাচীন ভারতীয় ঐতিহ্য সম্পর্কিত পাঠ্যক্রম কার্যকর করবে। এবার মাদ্রাসার পাঠক্রমে প্রাচীন ভারতের জ্ঞান-ঐতিহ্য-সংস্কৃতি চর্চার প্রস্তাব দেওয়া হল কেন্দ্রীয় শিক্ষা মন্ত্রকের তরফে। শিক্ষা মন্ত্রকের আওতাধীন স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান NIOS তৃতীয়,পঞ্চম এবং অষ্টম শ্রেণীর প্রাথমিক কোর্স শুরু করবে।

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ওপেন স্কুলিং (NIOS)-এর নতুন এই প্রস্তাবে এবার থেকে মাদ্রাসাতেও পড়ানো হবে বেদ, গীতা, রামায়ণ। ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ওপেন স্কুলিং-এর চেয়ারম্যান সরোজ শর্মা বলেছেন যে, প্রাথমিক ভাবে ১০০ মাদ্রাসায় (100 madrasas) এগুলি পড়ানো শুরু করা হবে। পরবর্তীতে ৫০০ মাদ্রাসায় তা চালু করা হবে। প্রসঙ্গত, ভারতীয় শিক্ষা মন্ত্রকের অধীনে একটি স্বাধীন শিক্ষা সংস্থা হল এই ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ওপেন স্কুলিং (NIOS)।

NIOS-এর নতুন প্রস্তাবে ১৫টি নতুন কোর্সের কথা বলা হয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে, বেদ, যোগ, বিজ্ঞান, বৃত্তিমূলক কোর্স, সংস্কৃত ভাষা, রামায়ণ, ভগবদ গীতা, পাণিনী প্রবর্তিত মহেশ্বর সূত্র। এই কোর্সগুলি প্রাথমিক শিক্ষার তৃতীয়, পঞ্চম এবং অষ্টম শ্রেণির সমতুল্য। কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল নিশাঙ্ক মঙ্গলবার নয়ডায় NIOS-এর জাতীয় সদর দফতর স্টাডি মেটেরিয়াল প্রকাশ করেছেন।

এদিন রমেশ পোখরিয়াল বলে, “ভারত সনাতন জ্ঞানের ভাণ্ডার। জ্ঞান, বিজ্ঞান, শিল্প, সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্যের দিকে নজর দিলে দেখা যাবে ভারত বিশ্বকে কী দিয়েছে। আমাদের প্রাচীন ব্যবস্থাটি এতই শক্তিশালী হয়েছে যে এর শক্তির ভিত্তিতে আমরা আরও একটি সুপার পাওয়ার হওয়ার দিকে এগিয়ে যেতে পারি।” তিনি আরও বলেন, “আমরা কেবল মাদ্রাসায় এই পরিস্থিতি বাস্তবায়ন করব না, পাশাপাশি বিশ্ব সমাজও এর সুবিধা পাবে তা নিশ্চিত করব।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here