কনকনে ঠান্ডাতেই এবার বর্ষবরণ করবে দেশ, একাধিক জেলায় শৈত্যপ্রবাহের পূর্বাভাস

0

বর্ষবরণের আগেই রাজ্যজুড়ে জাঁকিয়ে শীত। আজ কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১১ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি কম। রাজ্যের বেশ কয়েকটি জেলায় শৈত্যপ্রবাহের পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। অন্যদিকে, ঠান্ডায় কাঁপছে দিল্লি সহ গোটা উত্তর-পশ্চিম ভারত। তীব্র শীতের দাপটে কাঁপছে উত্তর পশ্চিমের রাজ্যগুলি। হিমালয় সংলগ্ন রাজ্যগুলিতে চলছে তুষারপাত। উত্তর-পশ্চিম ভারত থেকে কনকনে শীতল হাওয়া ঢোকায় বর্ষ শেষ এবং বর্ষবরণে জাঁকিয়ে ঠান্ডা উপভোগ করতে পারবেন রাজ্যবাসী।

কনকনে ঠান্ডাতেই এবার বর্ষবরণ করবে দেশ। মৌসম ভবনের পূর্বাভাস মতোই মঙ্গলবার সকাল থেকে উত্তরাখণ্ড, হিমাচল প্রদেশ, পঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগড়, দিল্লি এবং উত্তর রাজস্থানে বইছে অতি প্রবল শৈত্যপ্রবাহ। দিল্লির তাপমাত্রা নেমেছে ৩.‌৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। মৌসম ভবনের পূর্বাভাস, আগামী ৩১ তারিখ পর্যন্ত এই অবস্থা চলবে। পয়লা জানুয়ারি থেকে এই জায়গাগুলির বিক্ষিপ্ত অংশে শৈত্যপ্রবাহ চলবে। ৩১ তারিখ পর্যন্ত শৈত্যপ্রবাহ বইবে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ, ওডিশা, বিহার, ঝাড়খণ্ডেও। এই সব কটি রাজ্যে ৩১ তারিখ পর্যন্ত কমলা সতর্কতা জারি করেছে মৌসম ভবন। মঙ্গলবার দুপুরের বার্তায় মৌসম ভবনের আঞ্চলিক প্রধান কুলদীপ শ্রীবাস্তব বলেছেন, পশ্চিমী ঝঞ্ঝা পেরিয়ে যাওয়ার পর ঠান্ডা, শুষ্ক উত্তুরেপশ্চিমী হাওয়ার প্রভাবেই এই অতি প্রবল শৈত্যপ্রবাহ বইছে। আগামী ৩১ তারিখ পর্যন্ত উত্তরপশ্চিম ভারতে তাপমাত্রার পারদ প্রায় তিন-পাঁচ ডিগ্রি সেলসিয়াস নামবে। তারপর থেকে দুই-তিন ডিগ্রি সেলসিয়াস উঠবে। পঞ্জাব, হরিয়ানা, দিল্লিতে সকালের দিকে ভারী কুয়াশা থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here