গাজোলে জয় হিন্দ বাহিনীর মহা সমারোহের মিলন ক্ষেত্র পরিণত হল বন্ধনের মেলা

0

বিশেষ প্রতিবেদনঃ বাংলার বিশ্বশ্রী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাথেয়কে শিরোধার্য করে এবং বাংলার আগামীর সবুজায়নের জননেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণাই অনুপ্রাণিত হয়ে মালদা জেলা জয় হিন্দ বাহিনীর সভাপতি কৃষ্ণ দাসের তত্ত্বাবধানে ও গাজোল ব্লক জয় হিন্দ বাহিনীর ব্যবস্থাপনায় এক মহা সমারোহের মধ্য দিয়ে আদিবাসী সম্প্রদায়ের মধ্যে ঐক্যের ঐকান্তিক মিলন সম্প্রীতির সমাবেশ অনুষ্ঠিত হল।

উক্ত সভায় বিভিন্ন উন্নয়নমূলক বার্তা ও এলাকায় নব নির্মিত,এছাড়াও গাজল ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ববৃন্দগন উপস্থিত ছিলেন।তারা ছিলেন যথাক্রমে, প্রধান উদ্যোগক্তা কৃষ্ণ দাস সভাপতি মালদা জেলা তৃণমূল কংগ্রেস জয় হিন্দ বাহিনী ও জাহাঙ্গীর আলম (রাজীব) সভাপতি গাজল ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস জয় হিন্দ বাহীনীর উদ্যোগে এই মহা সমারোহের মিলন ঘটে। সুপ্রিয় চন্দ্র মুখপাত্র পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল কংগ্রেস, কপিল তালুকদার এডমিন প্রধান, রাজ্য AITCSSMC, রাকেশ পাড়ুই সম্পাদক পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল ছাত্র পরিষদ, জিয়াউল মোমিন সাধারণ সম্পাদক মালদা জেলা জয় হিন্দ বাহিনী, সাজু দেওয়ান সাধারণ সম্পাদক মালদা জেলা জয় হিন্দ বাহিনী, জাহাঙ্গীর আলম (রাজীব) সভাপতি গাজল ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস জয় হিন্দ বাহীনী।এদিন স্টেডিয়ামের শুভ উন্মোচন সহ সম্প্রীতির মিলন মেলা সুষ্ঠু ভাবে সম্পন্ন হয়। এদিন গাজোলে এই মিলন ক্ষেত্রে প্রায় ১৫ হাজার মানুষের উপস্থিতি ছিল যথেষ্ট লক্ষণীয়ভাবে যা জনসমুদ্রে পরিণত হয়।

এই মহত উদ্যোগকে সবুজায়নের ছোঁয়ায় উদ্বুদ্ধ করতে উপস্থিত ছিলেন সুপ্রিয় চন্দ (মুখপাত্র রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেস ), কপিল তালুকদার (মুখ্য অ্যাডমিন, রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেস সোস্যাল মিডিয়া সেল), রাকেশ বারুই (সম্পাদক, রাজ্য তৃণমূল ছাত্র পরিষদ), সহ আরো অন্যান্যরা। বরাবরই মালদা জয় হিন্দ বাহিনীর প্রধান তথা সভাপতি কৃষ্ণ দাসের নাম শিরোনামে উঠে এসেছে। তৃণমূল কংগ্রেসের সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জির আদর্শকে পাথেয় করে তিনি বরাবরই বিভিন্ন কর্মক্ষেত্রে মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন তার এই উদ্যোগে গাজোলে এদিন এই মহাসমারোহের জনসমুদ্রের মিলনক্ষেত্র সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here