চেন্নাইয়ের এক প্রসাধনী সামগ্রী তৈরির কোম্পানিতে আয়কর হানা, ২২০ কোটি কালো টাকার হদিশ

0

চেন্নাইয়ের এক প্রসাধনী সামগ্রী তৈরির কোম্পানিতে হানা দিয়ে ২২০ কোটি কালো টাকার হদিশ পেয়েছে আয়কর দফতর। সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ডিরেক্ট ট্যাক্সেস বা সিবিডিটি এই খবর জানিয়েছে। জানা গিয়েছে, চেন্নাইয়ের ওই কোম্পানির দেশজুড়ে অফিস রয়েছে। চেন্নাই, গুজরাত ও কলকাতা মিলিয়ে মোট ২০ জায়গায় গত শুক্রবার হানা দেন আয়কর দফতরের আধিকারিকরা। ওই হানাতেই এই কালো টাকার হদিশ পাওয়া গিয়েছে। সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ডিরেক্ট ট্যাক্সেস-এর তরফে একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, যে সংস্থার অফিসে হানা দেওয়া হয়েছে তারা দক্ষিণ ভারতের অন্যতম বড় প্রসাধনী সামগ্রী তৈরির কোম্পানি। শুধুমাত্র হদিশ পাওয়া নয়, ৮ কোটি ৩০ লাখ কালো টাকা বাজেয়াপ্ত হয়েছে কোম্পানির বিভিন্ন অফিস থেকে।বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, এই হানার পরে দেখা গিয়েছে সামগ্রী কেনা ও বিক্রির অনেক হিসেব নেই। এই হিসেব একটি গোপন অফিসে সফটওয়ারের মাধ্যমে কম্পিউটারে লুকিয়ে রাখা হয়েছিল। যেসব লেনদেনের হিসেব রয়েছে তা আসল লেনদেনের ৫০ শতাংশ। অর্থাত্‍ ৫০ শতাংশ লেনদেনের কোনও হিসেবই দেখায়নি কোম্পানি।সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ডিরেক্ট ট্যাক্সেস জানিয়েছে, কোম্পানির গত বছরের বিক্রির হিসেব অনুযায়ী বোঝা যাচ্ছে প্রায় ১২০ কোটি টাকার হিসেব দেখায়নি কোম্পানি। তাছাড়া বিভিন্ন গোপন পদ্ধতিতে শেয়ার বিক্রি করে আরও ১০০ কোটি টাকা কামিয়েছে এই কোম্পানি। তারও কোনও হিসেব নেই। অর্থাত্‍ সব মিলিয়ে ২২০ কোটি কালো টাকার হদিশ মিলেছে। সব কাগজপত্র বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এখনও তদন্ত শেষ হয়নি বলেই জানিয়েছে আয়কর দফতর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here