নবগঠিত আঞ্চলিক দল অসম জাতীয় পরিষদ (এজেপি)-কে রাজনৈতিক দলের স্বীকৃতি নির্বাচন কমিশনের

0

আজ রবিবার গুয়াহাটিতে হোটেল প্ৰাগ কন্টিন্যান্টে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে ভারতের নির্বাচন কমিশন দলকে রাজনৈতিক স্বীকৃতি দিয়েছে বলে জানান এজেপি-র সভাপতি লুরিনজ্যোতি গগৈ। তিনি জানান, সে অনুসারে ‘নদীর জলে ভাসমান জাহাজ’ প্রতীকচিহ্ণে আসন্ন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে অসম জাতীয় পরিষদ। ৫৬/১৬১/২০২০/২০২১/পিপিএস১ নম্বরে পঞ্জিভুক্ত করে গত ২৫ ফেব্ৰুয়ারি থেকে অসম জাতীয় পরিষদকে দেশের আরেকটি স্বীকৃত রাজনৈতিক দল হিসেবে ঘোষণা করেছে ভারতের নিৰ্বাচন কমিশন।

সাংবাদিক সম্মেলনে এজেপি সভাপতি লুরিনজ্যোতি বলেন, ব্ৰহ্মপুত্ৰে চলমান জাহাজ স্ব-নিৰ্ভরশীল অসম, বিভিন্ন জাতি-জনগোষ্ঠীর মধ্যে সমন্বয়, বাণিজ্য ক্ষেত্ৰে যোগসূত্ৰ, নদীর দু-পাড়ের সঙ্গে সমন্বয় ও অৰ্থনৈতিক ব্যবস্থার সঙ্গে জড়িত। তাই দল এই প্ৰতীকচিহ্ণ গ্রহণ করেছে, বলেন সভাপতি লুরিনজ্যোতি গগৈ। লুরিন বলেন, এতদিন ধরে প্ৰতীক না পাওয়ায় বিভিন্ন মহল থেকে সামাজিক মাধ্যমে ব্যাপক অপপ্ৰচার চালানো হচ্ছিল।

কংগ্ৰেসের মহাজোটে তাঁরা শামিল হচ্ছেন কিনা এক জিজ্ঞাসায় তাঁর স্পষ্ট বক্তব্য, এই মহাজোটে কখনও শামিল হবে না এজেপি, এঁদের সঙ্গে মিত্ৰতা সম্ভব নয়। লুরিন বলেন, ‘আমাদের রাজনৈতিক স্থিতি স্পষ্ট। জাতীয় দলের কোলে উঠে আমরা কখনও কেতিয়াও জাতীয়তাবাদ (অসমিয়া আঞ্চলিকতাবাদ) প্ৰতিষ্ঠা করব মা। আমরা স্বাভিমানী জাতীয়তাবাদ প্ৰতিষ্ঠা করার চেষ্টা চালিয়ে যাব।’ তিনি আরও বলেন, ‘বিপিএফ-প্রধান হাগ্ৰামা মহিলারির সঙ্গে এ ব্যাপারে বেশ কয়েকবার ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে। কিন্তু রাজনৈতিক কিছু বাধ্যবাধকতার জন্য তিনি মহাজোটের অংশীদার হয়েছেন।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here