বিজেপির উত্তরকন্যা অভিযান ঘিরে উত্তপ্ত উত্তরবঙ্গ

0

বিজেপির উত্তরকন্যা অভিযান ঘিরে উত্তপ্ত উত্তরবঙ্গ। দিলীপ ঘোষ, সায়ন্তন বসুরা মিছিল করে এগোতেই আটেক দেয় পুলিশ। উত্তরকন্যা থেকে প্রায় ৪ কিলোমিটার আগে ফুলবড়িতে আটকে দেওয়া হয় তাদের।বিজেপির যুব মোর্চার উত্তরকন্যা অভিযান ঘিরে আগেভাগেই প্রস্তুতি নেয় পুলিশ। শিলিগুড়ির তিনবাতি এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। রাস্তায় তুলে দেওয়া হয়েছে ব্যারিকেড। শিলিগুড়ি ঢোকার প্রায় সব রাস্তাতেই চলছে পুলিশের নাকা চেকিং।

গজলডোবা, রাজগঞ্জ-সহ ডুয়ার্সের বিভিন্ন জায়গায় বিজেপি কর্মীদের আটকে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ বিজেপির। বিজেপি কর্মীরাও কৌশল বদলে দলের গাড়ি থেকে নেমে পাবলিক বাস ধরে শিলিগুড়িতে পৌঁছনোর চেষ্টা করছেন। উত্তরকন্যা অভিযানে উদ্দেশ্যে রওনা দেওয়া বিজেপির গাড়ি আটকে দেয় পুলিশ।ধূপগুড়ি ঝুমুর এলাকায় দুইটি যাত্রীবাহী ছোটো গাড়ি এবং একটি বাসকে আটকে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ।

বাসটিকে ফিরিয়ে দিলেও ছোটো গাড়ি দুটিকে আটক করতেই গাড়িতে থাকা লোকজন নেমে অন্যত্র চলে যায়। পুলিশের তরফে গাড়ি দুটিকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। ধূপগুড়ি ব্লকের ঝুমুর এলাকায় পুলিশের তরফে এই গাড়ি গুলিকে আটক করা হয়েছিল বলে জানা গিয়েছে। বিশাল পুলিশ বাহিনী,র‍্যাফ সহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ওয়াংদে ভুটিয়া, ধূপগুড়ি থানার আই সি সুবীর কর্মকার।

কোচবিহার জেলা সভানেত্রী মালতি রাভা রায় এর গাড়ি আটকে দেওয়ারও অভিযোগ ওঠে। সভাস্থল পর্যন্ত পৌঁছতে পারছেন না বিজেপি কর্মী সমর্থকদের। উত্তর কন্যা অভিযানে দিদির পুলিশের সঙ্গে বিজেপি কর্মীদের ধস্তাধস্তি। ফুলবাড়ীর বেরিগেট ভাঙার চেষ্টা বিজেপির সমর্থকদের। বিজেপি কর্মীদের আটকাতে চালানো হয় জলকামান। চলছে জলকামান। পুলিশের পক্ষ থেকে পাঠানো হয়েছে টিয়ার গ্যাস। ছড়াচ্ছে টিয়ার গ্যাস চলছে জলকামান। দফায় দফায় পুলিশের সঙ্গে খন্ডযুদ্ধে জড়িয়ে পড়েছেন বিজেপি কর্মী সমর্থকরা।

অন্যদিকে বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে পুলিশকে লক্ষ্য করে পাখর ছোঁড়ারও অভিযোগ ওঠে। কোচবিহার জেলা বিজেপি নেত্রী উপর পুলিশ গুলি চালিয়েছে বলে অভিযোগ। অভিযোগ করেন কোচবিহার জেলা বিজেপির সভানেত্রী মালতি রাভা। পুলিশ বোম মেরেছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। বিজেপির উত্তরকন্যা অভিযানকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় রণক্ষেত্রে হয়ে ওঠে গোটা এলাকা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here