মালদায় দলীয় পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে প্রায় ২ কোটি টাকার আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ তুলে আদালতের দ্বারস্থ তৃণমূল

0

মালদার দৌলতনগর গ্রাম পঞ্চায়েত। তৃণমূলের প্রধানের বিরুদ্ধে প্রায় ২ কোটি টাকার আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ তুলে একেবারে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন তৃণমূলেরই ১২জন পঞ্চায়েত সদস্য। দলের পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধেই দলীয় পঞ্চায়েত সদস্য়দের এই অবস্থানকে ঘিরে যথেষ্ট অস্বস্তিতে তৃণমূলের জেলা নেতৃত্ব। এদিকে পঞ্চায়েত সদস্যদের একাংশের দাবি, ব্লক প্রশাসনকে গোটা বিষয়টি বার বার বলা হয়েছে। কিন্তু তাঁরা তলবি সভা ডাকছেন না। সেকারণেই ১৮জন সদস্যের মধ্যে ১২জনই প্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা চেয়ে আদালতে গিয়েছেন। পঞ্চায়েত সদস্য় পিন্টু যাদব বলেন, ‘আমাদেরকে না জানিয়ে প্রধান দুর্নীতিগ্রস্ত কাজ করছেন। প্রায় ২ কোটি টাকার আর্থিক তছরূপ করেছেন। আমরা এই পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হয়েছি।’

এদিকে মামলাকারীদের আইনজীবী তাপসকুমার মণ্ডল বলেন, ‘৫দিনের মধ্যে প্রত্যেক সদস্যকে ডেকে বিষয়টি যাচাই করতে হবে। কিন্তু বিডিও সেটি বাইপাস করে দিচ্ছেন।’ এদিকে হরিশ্চন্দ্রপুরের বিডিও পার্থ দাসের দাবি, ‘আইন আইনের মতো চলবে।’ তবে তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ মানতে চাননি পঞ্চায়েত প্রধান নজিবুর রহমান। তিনি বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ সত্যি হলে শাস্তি হবে। আমি কোনও দুর্নীতি করিনি।’ এদিকে তৃণমূলের অন্দরে দ্বন্দ্ব যত প্রকাশ্যে এসেছে বিজেপির উৎসাহ ততই বেড়েছে। বিজেপির মালদা জেলার সভাপতি গোবিন্দচন্দ্র মণ্ডল বলেন, ‘কিছু বিডিও পক্ষপাতিত্ব হয়ে কাজ করছেন। সরকারপক্ষ যেটা চাইছেন সেটাই করছেন, বাকিটা করছেন না।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here