রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৫ লাখের দোরগোড়ায়, ক্রমশ বাড়ছে সুস্থতার হার

0

সুস্থতার হার ক্রমশ বাড়ছে। সামান্য কমেছে ‘পজিটিভিটি রেট’ বা সংক্রমণের হার। তারইমধ্যে বাংলায় করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় পাঁচ লাখের কাছে পৌঁছে গেল।

স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, শনিবার পর্যন্ত রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৯৯,৬৯৭। তার মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩,১৭৫ জন নয়া আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। সেই সংখ্যাটা শুক্রবারের তুলনায় (৩,২০৬) কম। তবে শুক্রবারের তুলনায় শনিবার সামান্য বেশি টেস্ট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। শুক্রবার যেখানে ৪৪,৩৫১ টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছিল, শনিবার সেই সংখ্যাটা ৪৪,৩৮৯। স্বভাবতই কমেছে ‘পজিটিভিটি রেট’ (সংক্রমণের হার)। সার্বিকভাবে সংক্রমণের হার সামান্য কমে দাঁড়িয়েছে ৮.২ শতাংশ।

যথারীতি জেলাগুলির মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের নিরিখে শীর্ষে আছে কলকাতা (৭৮৮) এবং উত্তর ২৪ পরগনা (৭২৯)। এছাড়াও দক্ষিণ ২৪ পরগনা (২৬১), হুগলি (১৬৮), নদিয়া (১৪২), দার্জিলিং (১৩৮), হাওড়া (১২৫), হুগলি (১১৩) এবং জলপাইগুড়িতে (১০৬) নয়া আক্রান্তের সংখ্যা ১০০-র বেশি।

মৃত্যুর নিরিখেও সেই কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগনা শীর্ষে আছে। গত ২৪ ঘণ্টায় কলকাতায় মৃত্যু হয়েছে ১৪ জনের। উত্তর ২৪ পরগনায় সেই সংখ্যাটা ১০। দক্ষিণ ২৪ পরগনায় আরও ছ’জনের প্রাণহানি হয়েছে। ওই সময়ের মধ্যে রাজ্যে মোট ৪৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাঁদের মধ্যে ৪৩ জনের কো-মর্বিডিটির কারণে মৃত্যু হয়েছে। তাঁরা করোনা আক্রান্তও ছিলেন। শুক্রবার অবশ্য মৃতের সংখ্যা ছিল ৫২। সার্বিকভাবে রাজ্যে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮,৬৭৭।

তারইমধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ৩,২০৭ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তার ফলে মোট করোনা-জয়ীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৬৭,০৫৬। অর্থাৎ সুস্থতা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯৩.৪৭ শতাংশ। শুক্রবার যা ছিল ৯৩.৪২ শতাংশ। তার ফলে গত ২৪ ঘণ্টায় সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ৮১ কমেছে। আপাতত রাজ্যে এখনও ২৩,৯৬৪ জনের করোনা আছে।

Previous articleঅপেক্ষা আর কিছুদিনের, রাজ্যে আসতে চলেছে জাঁকিয়ে ঠান্ডা
Next articleগুয়াহাটি বিমানবন্দরে স্পাইসজেটের বোয়িং ৭৩৭-এ হার্ড ল্যান্ডিং, ভাঙল রানওয়ের লাইট

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here