স্ত্রীকে খুন করে দেহ পুঁতে রেখে থানায় নিখোঁজ ডায়েরি স্বামীর, তদন্তে পুলিশ

0

স্ত্রীকে খুন করে বাড়ির পিছনে মাটিতে পুঁতে থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করেন স্বামী। আর তারপর একসপ্তাহ ধরে দিব্যি বাড়িতে রান্না, খাওয়া দাওয়া করে চলেছিলেন স্বামী। কিন্তু শেষরক্ষা হল না। স্ত্রীকে খুনের অভিযোগে গ্রেফতার হলেন স্বামী। এটা মালদহের চাঁচলের স্বরূপগঞ্জের ঘটনা।

মঙ্গলবার বিকেলে ওই বাড়ির পাশ থেকে পচা দুর্গন্ধ বের হওয়ায় সন্দেহ হয় প্রতিবেশীদের। সেখানে গিয়ে গর্তে মৃতদেহ দেখতে পান তারা। তখনই পুলিশে খবর দেওয়া হয়। গোটা ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে এলাকায় পৌঁছয় বিরাট পুলিশ বাহিনী! গর্ত খুঁড়ে উদ্ধার করা হয় নিহত বধূর দেহ। কেন এই খুন করা হয়েছে?‌ তার উত্তর দেয়নি অভিযুক্ত স্বামী।

পুলিশ‌ সূত্রে খবর, খুন হওয়া বধূর নাম কালো বিবি(৩২)। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে স্ত্রীকে খুনের কথা স্বীকার করেন স্বামী মহম্মদ আলি। চার সঙ্গীকে নিয়ে আলি তার স্ত্রীকে খুন করেছে বলে পুলিশকে জেরায় স্বীকার করেছেন তিনি। বাকি তিনজনের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। তবে কি কারণে স্ত্রীকে খুন করা হয়েছে তা এখনও পুলিশের কাছে স্পষ্ট নয়।

এই খুনের নেপথ্যে পারিবারিক কারণ নাকি অন্য কোনও কারণে খুন তা তদন্তে নেমেছে পুলিশ। সম্প্রতি একইভাবে পরিবারের লোকজনকে খুন করে বাড়িতে পুঁতে রাখা হয়েছিল মালদাহের কালিয়াচকে। এবার চাঁচলে প্রায় একই ঘটনা ঘটায় এলাকাজুড়েই ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। প্রতিবেশীদের যাতে সন্দেহ না হয় তাই তিনি থানায় নিখোঁজের অভিযোগ দায়েক করেছিলেন। স্ত্রীকে ‘খুন’ করার পরেও কোনও অনুশোচনা নেই তার। বেশ নির্বিকার মহম্মদ আলি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here