হরিদেবপুরে বিদ্যুত্‍স্পৃষ্ট হয়ে বেঘোরে প্রাণ গেল যুবকের

0

ফের শহরে বিদ্যুত্‍স্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হল এক যুবকের। এ বার ঘটনাস্থল দক্ষিণ শহরতলির হরিদেবপুর অঞ্চল। তবে এবার জমা জলের মধ্যে নয়, বাইক চালিয়ে যাওয়ার সময় আচমকাই বিদ্যুতের খুঁটি থেকে তার ছিঁড়ে পড়ল যুবকরে শরীরে। যার জেরে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হল তাঁর।

মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনা ঘটেছে হরিদেবপুরের বাইশ বিঘা রোডে। মৃত যুবকের নাম মানিক বারুই (৩৬)। জোকার গোপালনগরের বাসিন্দা মানিক পেশায় গাড়ি চালানোর পাশাপাশি জিম ট্রেনার হিসেবে কাজ করতেন।

যেভাবে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে, তাকে দুর্ভাগ্যজনক বললেও বোধ হয় কম বলা হয়। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে দশটা নাগাদ ওই রাস্তা দিয়ে বাইকে চালিয়ে যাচ্ছিলেন মানিক। তখন প্রবল বৃষ্টির সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়ায়ও বইছিল। মানিকের ঠিক আগে আরও দু’টি গাড়ি বেরিয়ে যায়। কিন্তু মানিক ওই বিদ্যুতের খুঁটির পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় আচমকা একটি বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে ওই যুবকের গায়ের উপরে পড়ে। বিদ্যুত্‍স্পৃষ্ট হয়ে বাইক নিয়েই রাস্তার উপরে পড়ে যান মানিক। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে এলাকাবাসীরা ছুটে এসে পুলিশকে খবর দেন। বিদ্যুত্‍ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেহ উদ্ধার করা হয়। ওই এলাকাটি পশ্চিমবঙ্গ বিদ্যুত্‍ বণ্টন নিগমের মধ্যে পড়ে।

মানিকের বাড়িতে আরও তাঁর স্ত্রী, ছোট মেয়ে ছাড়াও বৃদ্ধ বাবাও রয়েছেন। মানিকই ছিলেন পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী। ঘটনাচক্রে তিন বছর আগে জামাইষষ্ঠীর ঠিক পরের দিন অটো দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছিল মানিকের মা এবং বোনের। সেই জামাইষষ্ঠীর পরের দিনই দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল মানিকের। কাকতালীয় হলেও তিন বছরের তফাতে এই ঘটনায় যেন আরও বেশি করে স্তম্ভিত মৃত যুবকের পরিবার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here