Sunday, December 4, 2022
Homeঅনান্যDengue virus Kolkata কলকাতায় ডেঙ্গু আক্রান্তের মৃত্যু।

Dengue virus Kolkata কলকাতায় ডেঙ্গু আক্রান্তের মৃত্যু।

Today Kolkata:- ফের ডেঙ্গুর থাবায় প্রাণ গেল এক শহরবাসীর (Dengue virus Kolkata)। ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন দক্ষিণ কলকাতার বাঁশদ্রোণীর এক বাসিন্দা। কিছুদিন লড়াই চালিয়ে মঙ্গলবার চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় তাঁর। মৃতের নাম সুব্রত সরকার (৬১)। মৃতের পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, গত বুধবার প্রথমে জ্বর আসে তাঁর। জ্বর না কমায় ডেঙ্গু পরীক্ষা করানোর পরামর্শ দেন চিকিৎসক। সেইমতো পরীক্ষা করে দেখা যায়, তিনি ডেঙ্গু আক্রান্ত। তড়িঘড়ি আলিপুরের এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। সেখানেই চিকিৎসা চলছিল তাঁর। চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়েন তিনি। উল্লেখ্য, রাজ্যে বর্তমান ডেঙ্গু পরিস্থিতি উদ্বিগ্ন প্রশাসন।

Dengue virus Siligurhi শিলিগুড়িতে ফের ডেঙ্গুর থাবা, মৃত শিশু।

কলকাতা, হাওড়া, উত্তর ২৪ পরগনা, সল্টলেক, দক্ষিণ দমদম এবং টিটাগড়ের ডেঙ্গু পরিস্থিতি রীতিমত চিন্তায় ফেলেছে স্বাস্থ্য দফতরের কর্তাদের। স্বাস্থ্য দফতরের রিপোর্ট অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন ৯৬৫ জন। মশাবাহিত এই রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৬০৪ জন। যদিও ডেঙ্গু প্রতিরোধে ইতিমধ্যে প্রশাসনের তরফে একাধিক পদক্ষেপ করা হয়েছে। জনসাধারণকে সচেতন করার পাশাপাশি মশা নিধনে অভিযানও চলছে জোরকদমে। শহর কলকাতায় বিভিন্ন অঞ্চলে ড্রোনের মাধ্যমে এলাকা পরিদর্শন করা হচ্ছে।

Dengue virus Kolkata কলকাতায় ডেঙ্গু আক্রান্তের মৃত্যু।

Health care skin সানস্ক্রিন লাগানোর পরও কালো হয়ে যাচ্ছেন? এই নিয়মগুলি মেনে চলুন।

Justice Avijit Gangopadhyay দুর্নীতি করে চাকরিতে ঢুকেছে প্রত্যেকের চাকরি যাবে”, কড়া হুঁশিয়ারি বিচারপতির।

Mamata Banerjee ধ্বংসের রাজনীতি করছে বিজেপি, ওদের বেলুন ফুটো হয়ে গিয়েছে’, কটাক্ষ মুখ্যমন্ত্রীর।

Indian comedian Raju Srivastav প্রয়াত স্ট্যান্ড-আপ কৌতুক অভিনেতা রাজু শ্রীবাস্তব।

MORE NEWS – টিভি চ্যানেলের সঞ্চালকরা তাঁদের লক্ষ্মণরেখা অতিক্রম করছেন : সুপ্রিম কোর্ট।

সরাসরি সুপ্রিম কোর্টের রোষাণলে পড়লেন টিভি চ্যানেলের সঞ্চালকরা। সর্বোচ্চ আদালতের বিচারপতি কেএম জোশেফ বুধবার এক মামলার রায়ে তাঁদের ভূমিকা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। রীতিমত অসন্তোষ প্রকাশ করে তিনি বলেন, “সঞ্চালকরা তাঁদের লক্ষ্মণরেখা অতিক্রম করছেন। বাক স্বাধীনতার অর্থ এটা নয়, মনে যা এল সেটাই বলে দেবেন। টিভি চ্যানেলের সঞ্চালকদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। কিন্তু অধিকাংশ ক্ষেত্রে দেখা যায়, সঞ্চালকেরা সেই ভূমিকা পালন করছেন না বা করতে ব্যর্থ হচ্ছেন। সঞ্চালকদের আরও সংযত হওয়া প্রয়োজন।” এমনটাই দাবি বিচারপতির। CONTINUE READING

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -

- Advertisment -

Recent Comments