Sunday, December 4, 2022
HomeখবরKabir Suman টেলিভিশন চ্যানেলের সম্পাদক ও সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা কবীর সুমনের।

Kabir Suman টেলিভিশন চ্যানেলের সম্পাদক ও সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা কবীর সুমনের।

Today Kolkata:- তাঁর অনুমতি ছাড়া ফোন কল রেকর্ড করা হয়েছে। এই অভিযোগে একটি টেলিভিশন চ্যানেলের সম্পাদক ও সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করলেন শিল্পী কবীর সুমন (Kabir Suman)। তাঁর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত সমন জারি করেছে। নভেম্বরে তাঁদের হাজিরার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। শুক্রবার নিজেই সোশ্যাল মিডিয়ায় এই খবর জানিয়েছেন শিল্পী। এদিন কবীর সুমন নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে আরও লিখেছেন, ‘কাউকে টেলিফোন করে সেই ব্যক্তির অনুমতি ছাড়া তাঁর কথা, তা সে স্তুতিবাক্যই হোক, প্রেমের কথাই হোক আর গালাগালই হোক, বিনা অনুমতিতে রেকর্ড করা আইনবিরুদ্ধ। রিপাবলিক টিভি ও তাঁদের রিপোর্টারের তা জানার কথা।

তাঁরা সব জেনেশুনেই আমার কথা রেকর্ড করে সোশাল মিডিয়ায় ও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেন। এই কাজ সম্পূর্ণ বে-আইনি জেনেও তার ভিত্তিতে একটি বিশেষ দলের প্রতিনিধি এবং আরও কেউ কেউ আমায় potential rapist বলতে থাকেন এবং আমাকে শারীরিক আক্রমণ করার ডাকও দেন। এই সব কিছুরই প্রমাণ আমার আইনজ্ঞদের কাছে আছে।’ ক্ষোভের সঙ্গে তিনি এগুলি লিখেছেন, ‘আমি কিন্তু আমার কথাগুলি রাস্তায় রাস্তায় বা জনসমাবেশে বা সোশাল মিডিয়ায় প্রচার করে বেড়াইনি। সেই রিপোর্টারকে বলেছিলাম broadcast করতে। Broadcast করার অর্থ বেতারে ও টেলিভিশনে প্রচার করা। বিনা অনুমতিতে চোরের মতো অডিও রেকর্ড করে তা ইন্টারনেটে, ফেসবুকে, হোয়াটস্যাপে ছড়িয়ে দেওয়া broadcast করা নয়।

’ উল্লেখ্য, চলতি বছরের জানুয়ারিতে এক বাংলা টেলিভিশন চ্যানেলের সাংবাদিকের সঙ্গে শিল্পী কবীর সুমনের কথোপকথনের অডিও ক্লিপ ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যেখানে গালাগাল-সহ আপত্তিজনক কথাবার্তা শোনা যায়। এরপর এই নিয়ে শোরগোল পড়ে যায় রাজ্য রাজনীতিতে। এই ঘটনার পর বিজেপি কবীর সুমনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করে।

Kabir Suman টেলিভিশন চ্যানেলের সম্পাদক ও সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা কবীর সুমনের।

MORE NEWS – রোগীর পেট কেটে উদ্ধার ৬৩টি চামচ, তাজ্জব চিকিৎসকরা।

অপারেশন করে রোগীর পেট থেকে বের হল চামচ। তাও আবার দু একটি নয়। গুনে গুনে ৬৩টি চামচ। রীতিমতো চোখ ছানাবড়া করা এই ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের মুজফ্ফরনগরে। জানা যায়, কয়েকদিন ধরেই অসহ্য পেটে যন্ত্রণায় ছটফট করছিলেন এক ব্যক্তি। ওষুধ খেলে ব্যথা সাময়িক কমে তারপর ফের একই অবস্থা। অবশেষে চিকিৎসকের দ্বারস্থ হন। রোগীর পরিস্থিতি দেখে চিকিৎসক তাঁর পেটের এক্সরে করানোর পরামর্শ দেন। CONTINUE READING

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -

- Advertisment -

Recent Comments