Sunday, December 4, 2022
Homeঅনান্যPartha & Arpita জামিনের আবেদন করে পার্থ চাইলেন সাহায্য, কেঁদে ভাসালেন অর্পিতা।

Partha & Arpita জামিনের আবেদন করে পার্থ চাইলেন সাহায্য, কেঁদে ভাসালেন অর্পিতা।

Today Kolkata:- Partha & Arpita অসুস্থতার কারণ দেখে বারবার জামিনের আবেদন করেছেন। কিন্তু তাতে কোন কাজই হয়নি। প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বুধবারেও ফের জামিনের আবেদন জানান। চাইলেন ‘হেল্প’। অন্যদিকে ‘মায়ের সঙ্গে দেখা করতে চাই’ বলে হাঁপুস নয়নে কেঁদে ভাসালেন অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। এদিন পার্থ ও অর্পিতা আদালতে ভার্চুয়ালি হাজিরা দিয়েছিলেন। শুনানির সময় পার্থ বলেন, ৬৬ দিন পেরিয়েছে। আমার মেডিক্যাল হেল্প চাই’। কারণ তাঁর অভিযোগ, তাঁকে যে মেডিক্যাল হেল্প করা হচ্ছে তা যথেষ্ট নয়। তাই যে কোনও শর্তে জামিনের আবেদন করেন পার্থ। বিচারকের উদ্দেশ্যে পার্থ এও বলেন, আমাকে অকারণে আটকে রাখা হয়েছে। আমার কেরিয়ারে নজর দিন।

Teacher Scam শিক্ষক নিয়োগের দুর্নীতি মামলার তদন্ত এগোল আরও একধাপ, বাড়ছে জল্পনা। Arpita & Partha অর্পিতার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পার্থকে জেরা, মিলতে পারে আরও সম্পত্তির খোঁজ।

পার্থ চট্টপাধ্যায়ের আবেদন বিবেচনা করে দেখা হবে। এমনটাই জানিয়েছেন বিচারক। অন্যদিকে, অর্পিতার কাতর আর্তি, ‘আমার মায়ের বয়স অনেক। মা কেমন আছেন জানি না। মায়ের সঙ্গে কথা বলতে চাই। একটু অ্যালাও করুন স্যার’। বিচারক এদিন শুনানির পরে স্পষ্ট জানিয়েছেন, মোবাইল ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া সম্ভব নয়। তবে জেলের ফোনে কথা বলার জন্য আবেদন করতে পারেন।

Partha & Arpita জামিনের আবেদন করে পার্থ চাইলেন সাহায্য, কেঁদে ভাসালেন অর্পিতা।

MORE NEWS – স্কুলের পোশাকেও বাসা বাঁধে করোনা ভাইরাস, চাঞ্চল্যকর দাবি রিপোর্টে।

দেশে করোনার দৈনিক সংক্রমণ নিম্নমুখী। এই ভাইরাসের লাগাম টেনে ধরা সম্ভব হয়েছে। কিন্ত তারপরেও করোনা আতঙ্ক পিছু ছাড়ছে না। এবার এই ভাইরাস সংক্রান্ত একটি রিপোর্ট বাড়িয়েছে উদ্বেগ। রিপোর্টে বলা হয়েছে, স্কুলের পোশাক তৈরিতে যে রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়, তা ঘাতক করোনা ভাইরাসকে চুম্বকগতিতে আকর্ষণ করে। বিশেষ করে সেই সব পোশাক যেগুলি ১০০ শতাংশ সুতো দিয়ে তৈরি করা হয়। সম্প্রতি এনভায়রনমেন্ট সায়েন্স অ্যান্ড টেকনলজি এই সংক্রান্ত একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। CONTINUE READING

MORE NEWS – তাজমহলের ৫০০ মিটারের মধ্যে ব্যবসায়িক কাজ বন্ধের নির্দেশ।

তাজমহলকে (Taj Mahal) বাঁচাতে পদক্ষেপ করেছে সুপ্রিম কোর্ট। অবিলম্বে এই স্মৃতিসৌধের ৫০০ মিটারের মধ্যে সব ধরনের ব্যবাসায়িক কাজকর্ম বন্ধ করতে হবে। সম্প্রতি আগ্রা ডেভেলপমেন্ট অথরিটিকে একথা সাফ জানিয়েছে সর্বোচ্চ আদালতের বিচারপতি সঞ্জয় কিশন কাঔল এবং বিচারপতি এএস ওকার ডিভিশন বেঞ্চ। ২০০০ সালেও এনিয়ে একই ধরনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। তবে শেষ পর্যন্ত তা পুরোপুরি কার্যকরী করা হয়নি। CONTINUE READING

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -

- Advertisment -

Recent Comments