Sunday, December 4, 2022
Homeঅনান্যUttar Pradesh news রোগীর পেট কেটে উদ্ধার ৬৩টি চামচ, তাজ্জব চিকিৎসকরা।

Uttar Pradesh news রোগীর পেট কেটে উদ্ধার ৬৩টি চামচ, তাজ্জব চিকিৎসকরা।

Today Kolkata:- Uttar Pradesh news অপারেশন করে রোগীর পেট থেকে বের হল চামচ। তাও আবার দু একটি নয়। গুনে গুনে ৬৩টি চামচ। রীতিমতো চোখ ছানাবড়া করা এই ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের মুজফ্ফরনগরে। জানা যায়, কয়েকদিন ধরেই অসহ্য পেটে যন্ত্রণায় ছটফট করছিলেন এক ব্যক্তি। ওষুধ খেলে ব্যথা সাময়িক কমে তারপর ফের একই অবস্থা। অবশেষে চিকিৎসকের দ্বারস্থ হন। রোগীর পরিস্থিতি দেখে চিকিৎসক তাঁর পেটের এক্সরে করানোর পরামর্শ দেন। এক্সরে রিপোর্টে দেখা যায়, পেটের ভিতরে জড়ো পদার্থের মতো কিছু রয়েছে। যা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে না। তাই চিকিৎসকের পরামর্শ মতো স্ক্যান করা হয়। স্ক্যান রিপোর্টে দেখা যায়, পেটের ভেতরে রয়েছে চামচ।

আর অপারেশন থিয়েটারে রোগীর পেট কাটতে ডাক্তার এবং তাঁর সহকর্মীরা তো প্রায় জ্ঞান হতে বসেছিলেন। কারণ বছর ৩২-এর বিজয় কুমারের পেটের ভেতরে চামচের ছড়াছড়ি। পেট থেকে বের করা হচ্ছিল একের এক চামচ। আড়াই ঘণ্টা ধরে অপারেশনের পর পেট কেটে উদ্ধার হয়েছে ৬৩টি চামচ। রোগীকে কিছুদিন পর্যবেক্ষণে রাখেন চিকিৎসকরা। ঘটনার বিষয়ে হাসপাতালের চিকিৎসকদের ওই ব্যক্তি বলেন, মাদকের নেশা ছাড়তে তিনি একটি রিহ্যাব সেন্টারে ভর্তি ছিলেন। সেখানে তাকে জোর করে চামচ খেতে বলা হয়েছিল দাবি। কীভাবে তিনি চামচগুলি গিয়েছিলেন তা ভাবতেই অবাক চিকিৎসকরা।

Uttar Pradesh news রোগীর পেট কেটে উদ্ধার ৬৩টি চামচ, তাজ্জব চিকিৎসকরা।

Partha & Arpita জামিনের আবেদন করে পার্থ চাইলেন সাহায্য, কেঁদে ভাসালেন অর্পিতা।

Corona Virus Report স্কুলের পোশাকেও বাসা বাঁধে করোনা ভাইরাস, চাঞ্চল্যকর দাবি রিপোর্টে।

Reserve Bank Of India ফের বদলাতে চলেছে ৫০০ টাকার নোট, পরিবর্তনের পথে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক।

MORE NEWS – তাজমহলের ৫০০ মিটারের মধ্যে ব্যবসায়িক কাজ বন্ধের নির্দেশ।

তাজমহলকে (Taj Mahal) বাঁচাতে পদক্ষেপ করেছে সুপ্রিম কোর্ট। অবিলম্বে এই স্মৃতিসৌধের ৫০০ মিটারের মধ্যে সব ধরনের ব্যবাসায়িক কাজকর্ম বন্ধ করতে হবে। সম্প্রতি আগ্রা ডেভেলপমেন্ট অথরিটিকে একথা সাফ জানিয়েছে সর্বোচ্চ আদালতের বিচারপতি সঞ্জয় কিশন কাঔল এবং বিচারপতি এএস ওকার ডিভিশন বেঞ্চ। ২০০০ সালেও এনিয়ে একই ধরনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। তবে শেষ পর্যন্ত তা পুরোপুরি কার্যকরী করা হয়নি। ১৬৩১ সালে মুঘল সম্রাট শাহজাহান তৈরি করেছিলেন এই স্থাপত্য। এটি ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট বলেও পরিচিত। CONTINUE READING

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -

- Advertisment -

Recent Comments