WB By-Election: ভবানীপুর-সহ তিন কেন্দ্রে শুরু ভোটগ্রহণ, বুথে বুথে পুলিশ-পর্যবেক্ষক

0

শুরু হল ভবানীপুর কেন্দ্রের উপনির্বাচন-সহ রাজ্যের বাকি দুই কেন্দ্রের বিধানসভা নির্বাচন।নির্ধারিত সময় সকাল ৭টা থেকেই শুরু হয়েছে ভোটগ্রহণ। বুধবারই ভোটারদের উদ্দেশে বার্তা দেন তৃণমূল নেত্রী তথা ভবানীপুরের প্রার্থী মমতা ব্যানার্জি। তিনি বলেন, ‘গণতন্ত্রের উত্‍সবে নির্ভয়ে ও আনন্দে ভোট দিন। প্ররোচনা ছড়াবেন না, প্ররোচনায় জড়াবেন না।’

WB By-Election: ভবানীপুর-সহ তিন কেন্দ্রে শুরু ভোটগ্রহণ, বুথে বুথে পুলিশ-পর্যবেক্ষক

Read More-তৃণমূলে যোগদান করলেন গোয়ার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সহ এক ঝাঁক কংগ্রেস নেতা

এদিকে ভবানীপুরে মোট ৩৫ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। মৌট ২৮৭টি বুথে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জে মোট ৭২ কোম্পানি আধাসেনা মোতায়েন রয়েছে। ইতিমধ্যেই বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল ১২৬ নম্বর বুথে বুথ জ্যামের অভিযোগ তুলেছেন। সকাল থেকেই বিভিন্ন বুথে ঘুরছেন তিনি। সব বুথে এজেন্ট দিতেও পারেননি বলে অভিযোগ বিজেপি প্রার্থীর।

শুধু এ রাজ্যে নয়, জাতীয় রাজনীতিতেও এই উপনির্বাচনের আলাদা তাত্‍পর্য রয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর কাছে এই নির্বাচন প্রেস্টিজ ফাইট। ৫ মে মুখ্যমন্ত্রী পদে তৃতীয় বারের জন্য শপথ নেন মমতা। তবে মন্ত্রী থাকতে হলে তার পরের ছ’মাসের মধ্যে তাঁকে জিতে আসতে হবে বিধানসভায়। সেই কারণেই ভবানীপুর থেকে উপনির্বাচনে লড়ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভবানীপুর ছাড়াও মুর্শিদাবাদের দুই কেন্দ্রেও ভোট শুরু হয়েছে। নির্বাচনের আগে বাম প্রার্থীর মৃত্যু হওয়ায় আজ মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুর আসনে ভোট হচ্ছে। মুর্শিদাবাদের সামশেরগঞ্জে নির্বাচনের আগে মৃত্যু হয় কংগ্রেস প্রার্থীর। তাই আজ এই কেন্দ্রেও ভোট হচ্ছে।

সকাল ৯টা পর্যন্ত ভবানীপুরে ভোট পড়ল ৭.৫৭ শতাংশ। জঙ্গিপুরে ১৭.৫১ শতাংশ ও সামশেরগঞ্জে ভোটদানের হার ১৬.৩২ শতাংশ। জঙ্গিপুরে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী জাকির হোসেন, বিজেপি প্রার্থী সুজিত দাস, আরএসপি প্রার্থী জানে আলম মিঞা। সামশেরগঞ্জে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী আমিরুল ইসলাম। কংগ্রেস প্রার্থী জইদুর রহমান। সিপিআই(এম) প্রার্থী মোদাশ্বার হোসেন ও বিজেপি প্রার্থী মিলন ঘোষ। ১৮ কোম্পানি বা প্রায় ১ হাজার ৩০০ কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ান মোতায়েন করা হয়েছে সামশেরগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে। জঙ্গিপুরে বিধানসভা কেন্দ্রে মোতায়েন রয়েছে ১৯ কোম্পানি বা প্রায় ১ হাজার ৪০০ কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ান। সকাল থেকে তিন কেন্দ্রে কোনও অশান্তির খবর সামনে আসেনি।

ভবানীপুরের মিত্র ইনস্টিটিউশনে যেখানে আজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ভোট দেবেন সেখানে সকাল থেকেই হাজির ছিলেন বিজেপি প্রার্থী প্রিয়ঙ্কা টিবরেওয়াল। তিনি বলেন, ‘জেনুইন ভোট হলে আমিই জিতব। তবে শাসকদল গুণ্ডামি করতে পারে বলে আশঙ্কা করছি।’ ১২৬ নম্বর বুথে ইভিএম কারচুপির অভিযোগ তুলেছেন তিনি। ভবানীপুরে মিত্র ইনস্টিটিউশনে ভোট দিলেন ৯০ বছরের এক বৃদ্ধা কড়া নিরাপত্তায় ভবানীপুরে ভোট চলছে।

বুথে বুথে মোতায়েন পুলিশ-পর্যবেক্ষক। দলে রয়েছেন ৫ জন জয়েন্ট সিপি, ১৪ জন ডেপুটি কমিশনার, ১৪ জন অ্যাসিস্ট্যান্ট কমিশনার ও ১০০ জন ট্রাফিক সার্জেন্ট। টানা বৃষ্টিতে ভবানীপুর গতকাল থেকেই জলমগ্ন। দ্রুত জমা জল বের করে দেওয়ার জন্য কলকাতা পুরসভার তরফ থেকে ভবানীপুরে কাজে লাগানো হয়েছে চারটি গলিপিট ক্লিয়ার ট্যাঙ্ককে। এক একটি ট্যাঙ্কের ক্যাপাসিটি দু’হাজার লিটার করে। তবে জল ভেঙেই আজ সকাল থেকে ভোট দিতে গেছেন ভোটাররা।

ভবানীপুরে ১৪৪ ধারা নিয়ে পুলিশের সঙ্গে বচসায় জড়িয়েছেন বিজেপি প্রার্থী প্রিয়ঙ্কা টিবরেওয়াল। সকাল থেকেই ইভিএম কারচুপি ও বুথ জ্যামের অভিযোগ তুলেছিলেন তিনি। বেলা গড়াতে ভোট কেন্দ্রে পৌঁছেছেন সিপিএম প্রার্থী শ্রীজীব বিশ্বাস। ১৪৪ ধারা নিয়ে তাঁর মত ভিন্ন। সিপিএম প্রার্থীর বক্তব্য, ১৪৪ ধারা থাকলেও দোকানপাট খোলা থাকতে পারে, কারণ এর সঙ্গে মানুষের রুজিরুটি জড়িয়ে আছে।

Previous articleতৃণমূলে যোগদান করলেন গোয়ার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সহ এক ঝাঁক কংগ্রেস নেতা
Next articleভবানীপুরের খালসা হাই স্কুলের ভোটকেন্দ্রে চরম উত্তেজনা, ভুয়ো ভোটার, রিগিংয়ের অভিযোগ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here