Friday, January 27, 2023
Homeকলকাতানিউ মার্কেট এলাকার হোটেল থেকে উদ্ধার একই পরিবারের বাবা-মা-ছেলের মৃতদেহ

নিউ মার্কেট এলাকার হোটেল থেকে উদ্ধার একই পরিবারের বাবা-মা-ছেলের মৃতদেহ

ঘরের দরজায় দীর্ঘসময় ধাক্কা দিয়েও সাড়া মেলেনি। শেষে দরজা ভাঙতেই চমকে ওঠেন হাউজ কিপিং বয়। দেখা যায়, ঘরের বিছানার ওপর পড়ে রয়েছে তিনজনের মৃতদেহ। আজ সকালে এই ঘটনা ঘটেছে কলকাতার নিউ মার্কেট এলাকার এক নামী হোটেলে। পুলিশ জানিয়েছে, মৃতদের নাম সুশীলকুমার বনসওয়াল (৬৬), তাঁর স্ত্রী চন্দাদেবী (৬০) ও ছেলে সুনীত কুমার বনসওয়াল (৪৫)। দুদিন আগে এই হোটেলের চারতলায় ঘর ভাড়া নেন তাঁরা। হোটেল কর্মীরা জানিয়েছেন, বাইরে থেকে খাবার আনিয়ে খেতেন তিনজনে। খুব একটা বাইরে বেরোতেন না। আজ সকালে ঘর পরিষ্কারের জন্য গিয়েছিল হাউজ কিপিংয়ের ওই ছেলেটি। সে দীর্ঘক্ষণ ধরে ডাকাডাকি করে, দরজায় ধাক্কা দিয়েও সাড়া না পেয়ে ম্যানেজারকে ডেনে আনে। সন্দেহ হওয়ায় দরজা ভাঙা হয়। তখনই দেখা যায়, খাটের ওপরে তিনজনের নিথর দেহ পড়ে রয়েছে। কীভাবে মৃত্যু হল তা এখনও পরিষ্কার নয়। পুলিশ জানিয়েছে, তিনজনের মুখ দিয়েই গ্যাঁজলা বের হচ্ছিল। বিষক্রিয়ায় মৃত্যু হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। খাটের পাশ থেকে একটি শিশি পাওয়া গেছে যার মধ্যে কোনও রাসায়নিক ছিল বলে মনে করা হচ্ছে। পুলিশ জানিয়েছে, একটি সুইসাইড নোট পড়েছিল মেঝেতে। তাতে লেখা ছিল ‘আমরা আত্মহত্যা করছি।’ বনসওয়াল পরিবার সত্যিই আত্মহত্যা করেছেন কিনা তার তদন্ত করা হবে। পুলিশ জানিয়েছে, প্রাথমিক তদন্তে মনে করা হচ্ছে, বিষক্রিয়ার কারণেই মৃত্যু। তবে ময়নাতদন্তের পরে মৃত্যুর কারণ সঠিকভাবে জানা যাবে।খবর পেয়ে আজ ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন ডিসি (সেন্ট্রাল) রূপেশ কুমার। তিনি জানিয়েছেন, তদন্ত শুরু হয়েছে। জানা গেছে, এই পরিবার শিলিগুড়ির বাসিন্দা। কলকাতায় ব্যবসার কাজে এসেছিল। হোটেলে তাঁদের সঙ্গে কেউ দেখা করতে এসেছিলেন কিনা তার খোঁজ চলছে। ব্যবসার কারণে কোনওরকম মানসিক চাপ তৈরি হয়েছিল কিনা তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -

- Advertisment -

Recent Comments