পাঞ্জাবের নির্বাচনে নিজের নতুন দল ঘোষণার সিদ্ধান্ত ক্যাপ্টেনের, ১১৭টি আসনেই দেবেন প্রার্থী

0

অবশেষে জল্পনার অবসান ঘটালেন ক্যাপ্টেন নিজেই। পাঞ্জাবের বিধানসভা নির্বাচনের আগেই নিজের পৃথক দল ঘোষণা করবেন বলে জানিয়েছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং। এবং পাঞ্জাবের ১১৭টি বিধানসভা কেন্দ্রে তিনি প্রার্থী দেবেন বলেও জানিয়েছেন। অমরিন্দর সিংয়ের এই ঘোষণার রীতিমত শোরগোল ফেলে দিয়েছে পাঞ্জাবের রাজনৈকিত মহলে। এতে কংগ্রেসের সংকট বাড়বে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

পাঞ্জাবের নির্বাচনে নিজের নতুন দল ঘোষণার সিদ্ধান্ত ক্যাপ্টেনের, ১১৭টি আসনেই দেবেন প্রার্থী

Read More-Google নিয়ে এল Android 12 আপডেট, এক নজরে দেখে নিন ফিচারগুলি

দল ছেড়ে কংগ্রেসকে নতুন চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দিলেন ক্যাপ্টেন অমরিন্দ সিং। নিজের পৃথর রাজনৈতিক দল তৈরির কথা আজ ঘোষণা করেছেন ক্যাপ্টেন। এই নিয়ে কানাঘুসো অনেকদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল। তিনি বিজেপিতে যোগ দেবেন না। নিজের পৃথক রাজনৈতিক দল গড়বে। তবে এতদিন অমরিন্দর নিজে কোনও কিছু বলেননি। বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে সেকথা জানালেন তিনি। অমরিন্দর সিং বলেছেন শীঘ্রই নিজের পৃথক রাজনৈতিক দলের নাম ঘোষণা করবেন তিনি। এখন চরম প্রস্তুতি চলছে। শুধু নিজের পৃথর রাজনৈতিক দল গড়ার কথাই জানাননি তিনি সেই সঙ্গে পাঞ্জাবের বিধানসভা ভোটে ১১৭টি আসনে তাঁর দল প্রার্থী দেবে বলেও জানিয়েছেন অমরিন্দর সিং। এখন কেবল নির্বাচন কমিশনের অনুমোদনের অপেক্ষা।

Read More-দীপাবলিতে রাজ্যে বাজি ফাটানো যাবে ২ ঘণ্টার জন্য: দূষণ নিয়ন্ত্রণ বোর্ড

অমরিন্দর সিং ভোটের আগে নতুন দল ঘোষণা করলে নিঃসন্দেহে বড় চ্যালেঞ্জের মুখে পড়বে কংগ্রেস। কারণ কংগ্রেস থেকেই অমরিন্দর অনুগামীরা বেরিয়ে যাবেন। তাঁরা ক্যাপ্টেনের দলে যোগ দেবেন। আর অমরিন্দর সিং যখ বলছেন তিনি ১১৭টি আসনে প্রার্থী দেবেন তখন এটা নিশ্চিত যে তিনি বেশ ভাল রকম লোক দলে টানতে সমর্থ হয়েছেন। অবং তাঁর দলে যে কংগ্রেসের নেতারাই থাকবেন তাতে কোনও সন্দেহ নেই। কাজেই ভোটের মুখে বড় ভাঙনের আশঙ্কা তৈরি হতে চলেছে পাঞ্জাব কংগ্রেসে। সেটা এখন কতটা আটকাতে পারবেন সিধু সেটাই এখন দেখার।

অমরিন্দর নতুন দল গড়ে প্রার্থী দিলে কংগ্রেসের ভোট কাটার সম্ভাবনা প্রবল রয়েছে। সেক্ষেত্রে লাভ হবে বিজেপিরই। এমনই মনে করছে রাজনৈিতক মহল। কারন মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগের পর কংগ্রেসের অন্দরে ক্ষমতা নিয়ে দলাদলি শুরু হয়েছে। চান্নিকে মুখ্যমন্ত্রী করায় পদত্যাগ করেছিলেন সিধু। এই নিয়ে জোর শোরগোল পড়ে গিয়েছিল পাঞ্জাব কংগ্রেসে। অনেক চেষ্টার পর মান ভঞ্জন হয়েছে সিধুর। প্রদেশ কংগ্রেসের দায়িত্ব নিলেও তেমন ভাবে সেটা সামাল দিতে পারবেন কিনা সেটা বড় চ্যালেঞ্জ। এই পরিস্থিতিতে কংগ্রেসে থেকেও অনেকেই অমরিন্দরকে সমর্থন করবেন তাতে কোনও সন্দেহ নেই। ভোট ভাগ হয়ে যাবে কংগ্রেসের। তাতে লাভ হবে বিজেপিরই বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

 

Previous articleGoogle নিয়ে এল Android 12 আপডেট, এক নজরে দেখে নিন ফিচারগুলি
Next articleGmail-এর নতুন ওয়েব ফিচার, জেনে নিন কী কী সুবিধা পাবেন?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here