অবশেষে কোরেগাঁও ভীমা মামলায় ২ বছর জেলে থাকার পর জামিন পেলেন ভারভারা রাও

0

অবশেষে জামিন পেলেন ভারভারা রাও। কোরেগাঁও ভীমা মামলায় ২ বছর জেলে থাকার পর সোমবার জামিনে মুক্তি পেলেন তিনি। মেডিক্যাল গ্রাউন্ডে ৮১ বছরের এই কবিকে ৬ মাস জামিন দিয়েছে বম্বে হাই কোর্ট।

মুম্বইয়ের নানাবতী হাসপাতালে চলবে তাঁর চিকিত্‍সা। সেখানে তাঁকে ভর্তি করেছে মহারাষ্ট্র সরকার। হাই কোর্টের নির্দেশ মেনেই পদক্ষেপ নিয়েযে মহারাষ্ট্র সরকার। ভারভারা রাওকে আদালত মুম্বইতেই থাকার নির্দেশ দিয়েছে। প্রয়োজন পড়লে তাঁকে তদন্তে সাহায্য করতে হবে এমনও নির্দেশ রয়েছে তাঁর উপর। তাঁকে এনআইএ (ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি) আদালতে তাঁর পাসপোর্টও জমা করতে হয়েছে। তাঁকে ৫০ হাজার টাকার একটি ব্যক্তিগত বন্ড জমা দিতে হয়েছে। এছাড়া ওই একই টাকার দুটি জামানতও দিতে হয়েছে ভারভারা রাওকে।

২০১৮সালের ২৮ আগস্ট থেকে হেফাজতে রয়েছেন ভারভারা রাও। হাই কোর্ট জানিয়েছে যদি এখন তাঁকে মেডিক্যাল গ্রাউন্ডে জামিন না দেওয়া হয়, তবে তা হবে অমানবিক। আর এটি সম্পূর্ণভাবেই নাগরিকের জীবন ও স্বাস্থ্যের প্রশ্ন। ভারভারা রাওয়ের জামিনের পর তাঁর মেয়ে পাবনি জানিয়েছেন, ‘আমরা অব্যাহতি পেয়েছি। আমাদের জন্য স্বস্তির খবর। আড়াই বছর পর এই মামলার কেউ অল্প বিস্তর স্বস্তিও পায়নি। এটাই ভীমা কোরেগাঁও মামলার প্রথম জামিন। আমরা খুব খুশি। একটাই মাত্র শর্ত আমাদের মুম্বইয়ের বাইরে গেলে চলবে না। সেই মতো আমাদের কাজ করতে হবে। আমরা আমাদের আইনজীবীদের সঙ্গে কথা বলব।’ প্রসঙ্গত, এই মাসের গোড়ার দিকে ভারভারা রাওয়ের আইনজীবী ইন্দিরা জয়সিং তাঁর স্বাস্থ্যের কথা তুলে বম্বে হাইকোর্টের কাছে জামিনের আবেদন করেছিল।

বছত্‍ দুই আগে অভিযোগ উঠেছিল, প্রমাণ ছাড়াই মাওবাদী ঘনিষ্ঠ কিছু বুদ্ধিজীবী জড়িত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে খুনের ষড়যন্ত্রে। শুধু তাই নয়, গত বছর পুনের কাছে ভীমা কোরেগাঁওতে দলিতদের জমায়েতে হিংসাত্মক পরিবেশ তৈরি করার পিছনেও তারা জড়িত। ২০০ বছর আগে পেশোয়া বনাম ব্রিটিশদের মধ্যে সংঘর্ষে পেশোয়ার বিপক্ষে গিয়েছিলেন ভীমার দলিতরা। সেই ঘটনার বর্ষপূর্তি ঘিরে গতবছর ছড়ায় তীব্র হিংসা। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার দেশজুড়ে চলে ধরাপকড়। তাতে গ্রেফতার করা হয়েছে মাওবাদী ঘনিষ্ঠ কবি ভারাভারা রাওকে। ৭৮ বছর বয়সী ভারাভারা-কে গ্রেফতারের ঘটনায় দেশ জুড়ে সমালোচনা শুরু হয়েছে। ঘটনার জেরে নিন্দের ঝড় ওঠে বিভিন্ন মহলে। প্রতিবাদে সরব হয়েছেন বহু বুদ্ধিজীবী। তাঁদের অভিযোগ, কোনওরকম প্রমাণ ছাড়াই অন্যায় ভেবে গ্রেফতার করা হয়েছে তাঁকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here