ত্রিপুরায় ফের আক্রান্ত তৃণমূল, কাঠগোরায় বিপ্লব দেব সরকার

0

ত্রিপুরায় পুরভোট যত এগিয়ে আসছে ততই উত্তেজনার পারদও চড়ছে। পুরভোটকে পাখির চোখ করে প্রচারে নেমেছে তৃণমূল। আর তারই পরিণতিতে সামনে আসছে একের পর এক অশান্তির ঘটনা। তৃণমূল কর্মীরা ফের বিজেপির হামলার মুখে পড়ছেন। অভিযোগ তৃণমূলের। এনিয়ে ত্রিপুরার মুখ্য়মন্ত্রী বিপ্লব দেবকে সরাসরি নিশানা করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। টুইটের মাধ্যমেও বিপ্লব দেব পরিচালিত সরকারকে তুলোধোনা করেছে তৃণমূল।

তৃণমূলের অভিযোগ গত রাতে ১১ নম্বর ওয়ার্ডে বিজেপির হামলার মুখে পড়েন তৃণমূল কর্মীরা। একজন তৃণমূল কর্মীকে বেধড়ক মারধর করা হয়। তাকে জিবি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শরীরের বিভিন্ন জায়গায় তাঁর ক্ষতচিহ্ন রয়েছে বলে তৃণমূলের দাবি। এরপরই বিপ্লব দেবের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছে তৃণমূল। টুইট করে তৃণমূলের পক্ষ থেকে লেখা হয়েছে, মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের প্রতি চরম অবমাননা। ত্রিপুরার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির উপর বিপ্লব দেব সরকারের কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই। এটা লজ্জার!

এর সঙ্গেই তৃণমূলের পক্ষ থেকে লেখা হয়েছে, বিপ্লব দেব সরকার মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের প্রতি পুরোপুরি অবমাননা করছে। জাতীয় মানবাধিকার কমিশন এখন চুপ কেন? ত্রিপুরা পুলিশ কেন কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে না? এই পক্ষপাতিত্বের কারণটা কী?

এদিকে সম্প্রতি ত্রিপুরায় সন্ত্রাসের প্রতিবাদ জানিয়ে ও প্রচারে সহযোগিতার জন্য সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিলেন রাজ্যসভার সাংসদ সুম্মিতা দেব। এরপর ভোট পরিস্থিতিতে সমস্ত রাজনৈতিক দল যাতে প্রচারে সুযোগ পায় সেজন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য ত্রিপুরা সরকারকে নির্দেশ দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। তারপরেও এই সন্ত্রাসের ঘটনাকে হাতিয়ার করে স্বাভাবিকভাবেই বিপ্লব দেব সরকারকে বিঁধেছে তৃণমূল।

Previous articleঅর্পিতা ঘোষের ছেড়ে যাওয়া রাজ্যসভা আসনে প্রার্থী হচ্ছেন গোয়ার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী
Next articleআজ থেকে পাহাড়ে চালু হচ্ছে ‘হিমকন্যা’ টয় ট্রেন পরিষেবা, দেখুন সময়সূচি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here