পড়ুয়াদের একাধিক ফি মুকুব! ঘোষণা কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের

0

কোভিডের জেরে ২০২০ সালের মার্চ থেকেই বন্ধ রয়েছে রাজ্যের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। বন্ধ আছে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ও। ফলে হচ্ছে না কোনও ক্লাসও। কিন্তু পড়ুয়াদের গুণতে হচ্ছিল বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার খরচ। তাই বিশ্ববিদ্যালয়ের সমস্ত সেমেস্টারের টিউশন ফি মকুব করতে হবে এমন একটা দাবি করে আসছিল বাম ও ডানপন্থী ছাত্র সংগঠনগুলি। এবারে সেই ডাকেই সাড়া দিল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এদিন তাঁরা জানিয়েছেন, সমস্ত সেমেস্টারের টিউশন ফি মকুব করে দেওয়া হল। তাঁদের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে পড়ুয়া থাকে শুরু করে ছাত্র সংগঠনগুলিও।

পড়ুয়াদের একাধিক ফি মুকুব! ঘোষণা কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের

Read more-সোশ্যাল মিডিয়ায় মুখ্যমন্ত্রীকে খুনের হুমকি ! অধ্যাপকের বিরুদ্ধে লালবাজারে অভিযোগ দায়ের

কোভিডের জেরে গত দেড় বছর ধরে বন্ধ রাজ্যের সব স্কুল-কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়। কিন্তু কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের কাছ থেকে প্রত্যেকটি সেমেস্টারের টিউশন ফি নিচ্ছিল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়। তার জেরেই একাধিক ছাত্র সংগঠন সরব হয়েছিল টিউশন ফি মকুব করার জন্য। গত কয়েক দিনে একাধিক বার ছাত্র সংগঠনগুলিও কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপচার্যের দ্বারস্থ হয়েছিল। তাদের দাবি ছিল, কোভিড আবহে যখন বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ, কোনপ ক্লাস হচ্ছে না, তখন কেন এই টিউশন ফি নেওয়া হবে।

এ নিয়ে বৃহস্পতিবার বামপন্থী ছাত্র সংগঠন ডিএসও একটি ডেপুটেশনও জমা দেয় কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে। এই স্মারকলিপি জমা দেওয়ার আগে অবস্থান বিক্ষোভও করে তাঁরা। সেদিনই সহ-উপাচার্য এই ছাত্র সংগঠনের সদস্যদের আশ্বস্ত করে জানিয়েছিলেন, এই দাবি মেনে নেওয়া হতে পারে। সেই মতো এদিন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারের তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে, কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় প্রত্যেকটি সেমেস্টারের টিউশন ফি মকুব করা হচ্ছে।

Read More-মাঝ আকাশে পাইলটের হার্ট অ্যাটাক, নাগপুরে জরুরি অবতরণ বাংলাদেশগামী বিমানের

ছাত্র সংগঠনগুলির তরফেই জানা গিয়েছে, কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সেমেস্টার ফি দিতে না পারা ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা নেহাত কম নয়। অনেক পড়ুয়া এই ফি-এর একটা অংশ জমা দিলেও, অনেকেরই পুরো টাকা বকেয়া রয়েছে। সেই সমস্ত বকেয়া মকুব করে দেওয়ারই দাবি জানিয়েছিল তাঁরা। রাজ্যের প্রায় সব বিশ্ববিদ্যালয়েই এই দাবি জানাচ্ছে ছাত্র সংগঠনগুলি। তবে রাজ্যের মধ্যে এউ প্রথম কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় এই সিদ্ধান্ত নিল। দেখার বিষয় রাজ্যের অনান্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের এই সিদ্ধান্ত মেনে নেয় না নেয় না। তবে এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন রাজ্যের শিক্ষাবিদরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here