কর্ণাটকের পর এবার গুজরাটে, তৃতীয় ওমিক্রন আক্রান্তের খোঁজ মিলল ভারতে

1

ভারতে ক্রমশ বাড়ছে ওমিক্রন আতঙ্ক। কর্ণাটকের পর এবার গুজরাটে। জিম্বাবোয়ে থেকে আসা এক ব্যক্তির নমুনায় ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের উপস্থিতি ধরা পড়েছে। গুজরাটের স্বাস্থ্য দফতরের তরফ থেকে জানানো হয়েছে জামনগরে এক করোনা আক্রান্তের নমুনায় নতুন এই ভ্যারিয়েন্টের উপস্থিতি রয়েছে।

কর্ণাটকের পর এবার গুজরাটে, তৃতীয় ওমিক্রন আক্রান্তের খোঁজ মিলল ভারতে

Read More-পুরসভা নির্বাচনেও প্রচারে নামবেন খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, রয়েছে পরপর দুটি সভা

গত বৃহস্পতিবার ৭২ বছর বয়সী ওই বৃদ্ধের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর সামনে আসে। সেই নমুনা জিনোম সিকোয়েন্সিং-এর জন্য পাঠানো হয়েছিল। এরপরই ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের উপস্থিতির কথা জানা গিয়েছে। গুজরাটের হেলথ কমিশনার জয়প্রকাশ শিবারে এই খবর জানিয়েছেন। আগে ভারতে দু জনের ওমিক্রন আক্রান্ত হওয়ার খবর জানিয়েছিল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক। দুটো ঘটনাই ছিল কর্ণাটকের।

শুক্রবার লোকসভায় কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী মনসুখ মাণ্ডব্য জানিয়েছেন, কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে যে সব দেশকে চিহ্নিত করেছে, সেই সব দেশ থেকে গত কয়েকদিনে ১৬০০০ জন এসেছেন ভারতে। এর মধ্যে ১৮ জন করোনা আক্রান্ত। তাঁদের সবার জিনোম সিকোয়েন্সিং করা হচ্ছে। তাঁদের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদেরও চিহ্নিত করা হচ্ছে।

Read More-কয়লা কাণ্ডে লালা ঘনিষ্ঠ চার ব্যবসায়ীকে তলব করল ED

এরই মধ্যে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে অন্ধ্র প্রদেশে। গত ১০ দিনে বিদেশ থেকে ফিরেছে এমন ৩০ জনের কোনও খোঁজ নেই। জানা গিয়েছে গত ১০ দিনে ৬০ জন এসেছেন বিদেশ থেকে। তাঁরা বিশাখাপত্তনমে গিয়েছিলেন। এর মধ্যে ৩০ জনে সেখানেই রয়েছেন, বাকিরা অন্য কোথাও চলে গিয়েছেন। তাঁদের সঙ্গে ফোনেও যোগাযোগ করা যাচ্ছে না।

কোভিড-১৯ এর নতুন সংস্করণ ওমিক্রন। দক্ষিণ আফ্রিকায় কোভিডের এই নতুন সংস্করণের প্রথম শনাক্ত করেন চিকিত্‍সক অ্যাঞ্জেলিক কোয়েটজি। সম্প্রতিই তিনি দেশে আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে প্রকাশ পাওয়া লক্ষণগুলির ব্যাপারে আলোকপাত করেছেন। সর্বভারতীয় এক চ্যানেলকে সাক্ষাত্‍কারে তিনি বলেছেন, দক্ষিণ আফ্রিকায় টিকা নেওয়া এবং না নেওয়া দুই ধরনের মানুষের শরীরেও ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া গিয়েছে, তবে তার লক্ষণ অতি সামান্যই।

এ দিকে, বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বর্তমানের করোনা টিকাগুলি ওমিক্রনের ক্ষেত্রে ততটা কার্যকর নাও হতে পারে। আর এর মধ্যেই কিছুটা স্বস্তির খবর। ওমিক্রনের সংক্রমণ রুখতে বাকি টিকাগুলির তুলনায় বেশি কার্যকর হতে পারে ভারত বায়োটেকের তৈরি কোভ্যাক্সিন। এমনটাই জানিয়েছেন আইসিএমআরের এক আধিকারিক। ওই আধিকারিক জানিয়েছেন, বাজারে চলতি অন্যান্য করোনা টিকাগুলির তুলনা অনেকটা বেশি কার্যকর হতে পারে কোভ্যাক্সিনের ডোজ়। তাঁর কথায়, কোভ্যাক্সিন হল একটি ভিরিওন-ইনঅ্যাক্টিভেটেড ভ্যাকসিন যা পুরো ভাইরাসকে কভার করে এবং করোনার পরিবর্তিত নতুন রূপের বিরুদ্ধে লড়াইয়েও যথেষ্ট ভাল কাজ করতে পারে।

Previous articleকয়লা কাণ্ডে লালা ঘনিষ্ঠ চার ব্যবসায়ীকে তলব করল ED
Next articleআগামী বছর উত্তরাখণ্ডে নির্বাচন, তার আগেই রাজ্যে ‘কল্পতরু’ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here